১৫ দিন দেখা নেই ভিক্ষুকের, অসুস্থ শুনে বাজার-সদাই নিয়ে বাড়িতে হাজির ওসি

জেলা খবর

ভিক্ষুক ১৫-২০ দিন দিন ধরে আসে না। এটাই চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াল। কেন আসেন না? খোঁজ খবর নেওয়া হলো সেই ভিক্ষুক অসুস্থ। থানার অফিসার ইনচার্জ এই খবর পেয়ে ছুটে গেলেন ছুটে গেলেন সেই ভিক্ষুকের বাসায়, শুধু তাই নয়, একমাত্র কর্মক্ষম তিনিও যেহেতু অসুস্থ তাহলে নিশ্চই পরিবার না খেয়ে আছে। ৩টি দেশি মুরগি, ১টি রুই মাছ, ৫০ কেজি চাউল ও নগদ ১০০০ টাকা নিয়ে হাজির হলেন ভিক্ষুকের বাড়িতে। এমন মানবিক ঘটনাটি সিলেটের চুনারুঘাট এলাকার।

অফিসার ইনচার্জ কেএম আজমিরুজ্জামানের প্রশংসায় সোশ্যাল মিডিয়ায় সরগরম। নেটিজেনদের ভাষ্য, ‘এমন মানবতাই আমাদের বিস্মিত করে দেয়।’

জানা গেছে, চুনারুঘাট থানার প্রতিবন্ধী ভিক্ষুক আকসির মিয়া বিভিন্ন অফিস আদালতে ভিক্ষা করে বেড়ান। তার এক পা নষ্ট সেই অবস্থাতেই লাঠিতে ভর করে  ভিক্ষা করেন। কিন্তু ১৫-২০ দিন ধরে আকসির মিয়ার চেহারা না দেখে অবাক হন চুনারুঘাট থানার ওসি কেএম আজমিরুজ্জামান। তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন  আকসির মিয়া অসুস্থ।

আজমিরুজ্জামান ভোরের প্রভাতকে বলেন, ‘আকসির মিয়া বিভিন্ন অফিস আদালতে ভিক্ষা করেন। মাঝে মধ্যে দেখি নিজ উদ্যোগে রাস্তায় ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণও করেন। তার ভেতর দায়িত্ববোধ দেখে অবাক হই। যে নিজেই ভিক্ষা করে সে-ই আবার নিজ উদ্যোগে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করে। এটাই ওঁর সম্পর্কে একটা চিন্তা মাথায় রাখতে সহায়তা করে।’

তিনি বলেন, ‘আকসির মিয়া আমার কাছে এলে আমি ব্যস্ততার মধ্যে ২০-৫-১০০ যা পারি দিয়ে দেই। মাঝে-মধ্যেই আসে। কিন্তু ১৫-২০ দিন ধরে তাকে না দেখে একটু চিন্তিত হই। খোঁজ নিয়ে জানতে পারি। সে অসুস্থ। ভাবলাম সে ভিক্ষা করেই সংসার চালাতো। সে-ই যদি অসুস্থ হয় তাহলে তারা কী খেয়ে আছে। আমি ওদের বাসায় যাই, যাওয়ার সময় বাজার সদাই করে নিয়ে যাই।’

ওসি আজমিরুজ্জামান বলেন, আমি আর কী করেছি। যা করেছি তা খুবই সামান্য। এটা আমার নিকট কর্তব্য মনে হয়েছে। তবে আকসির আবেক্রান্ত হয়ে পড়ে। হয়তো তার বাসায় কেউ এভাবে বাজার নিয়ে উপস্থিত হবে ভাবেনি। তবে উপকারটা যা হয়েছে তা হলো আকসির মিয়াকে এখন অনেকেই সহায়তা করতে চাইছে। কেউ কেউ তাকে বাড়ি করে দিতে চাইছে। বিভিন্ন ভাবে সহায়তা করতে চাইছে। কাল থেকে অনেকগুলো ফোন আসছে।

ওসি আজমিরুজ্জামানের এমন কাজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিবাচকভাবে প্রভাব ফেলেছে। নেটিজেনরা ওসির প্রশংসা করছেন। সাথে এমন মানবিক হতে আহবান জানাচ্ছেন সকলকে। এটাকে দৃষ্টান্ত হিসেবেও উল্লেখ করছেন নেটিজেনরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *