স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, মামা গ্রেপ্তার

জেলা খবর

নগরীর বন্দর থানার ব্যাংক কলোনি এলাকার ডাস্টবিন গলিতে রোববার শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। আর রাতেই গ্রেপ্তার করা হয় ওই ছাত্রকে।

নিহত শিশুটি (৯) বন্দর থানার মাইলের মাথা এলাকায় হালিমা চিশতি কিন্ডারগার্টেনে দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ত।

গ্রেপ্তার নবম শ্রেণির ছাত্র ওই শিশুর মায়ের চাচাত ভাই। সে বেগমজান উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র। দুই পরিবার পাশাপাশি ভবনে থাকে।

বন্দর থানার ওসি সুকান্ত চক্রবর্ত্তী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, মেয়েটির বাবা দিনমজুর আর মা একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। মাঝে মাঝে স্কুল থেকে ফেরার পর শিশুটি গ্রেপ্তার ওই ছাত্রের বাসায় গিয়ে তার বোনের পড়ত।

ওসি বলেন, “নিকটাত্মীয় হওয়ায় দুই পরিবারের সদস্যদের একে অন্যের বাসায় যাতায়াত ছিল। রোববার বিকালে মেয়েটি নিজের বাসায় একা থাকায় ওই কিশোর সেখানে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে।

“নিপু বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে দেওয়ার কথা বললে ওই কিশোর তাকে শ্বাসরোধে খুন করে লাশ ফ্যানের সাথে ‍ঝুলিয়ে রাখে।”

রাতে নিপুর বাবা মা বাসায় এসে বিষয়টি জানতে পারে উল্লেখ করে ওসি সুকান্ত বলেন, বিষয়টি থানায় জানানোর পর পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

“বিষয়টি নিয়ে বিভিন্নজনের সাথে কথা বলার সময় ওই কিশোরকে সন্দেহ হলে তাকে থানায় নিয়ে আসি রাতে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে ধর্ষণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে।”

এই ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *