সোনারগাঁ জাদুঘরের সাবেক পরিচালক রবীন্দ্র গোপের অধ্যায় শেষ হলো নারী কেলেঙ্কারি নিয়ে।

জেলা খবর

বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন সোনারগাঁ (জাদুঘর) এর সাবেক পরিচালক কবি রবীন্দ্র গোপ অসামাজিক কার্যকলাপের সময় স্থানীয় জনতারা সনিয়া আক্তার মিম(২০)নামের এক নারী সহ আটক করেছে।

বৃহস্পতিবার(১৩ জুন)সকালে যাদুঘরের ডাক বাংলোর ভিতরের একটি কক্ষ থেকে রবীন্দ্র গোপ ও এক নারীকে আটক করা হয়।

এসময় খবর পেয়ে সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) মোঃআলমগীর ও উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে নারী ও রবীন্দ্র গোপ ক্ষমা চেয়ে পার পাওয়ার চেষ্টা করে। তার বিরুদ্ধে এর আগেও এসব কার্যকলাপের অভিযোগ রয়েছে এর আগে তিনি বন্দর থেকে আসা এক মহিলাকে নানা প্রলোভন দেখি মহিলার নিজ নাম পরিবর্তন করে সীমা নামে ডাকেন ও তাকে বিষেশ সুবিধা দিতেন তার আগে কনা নামের আরেক মহিলাকে ছাড়া উপস্থাপনাই করতেন না তিনি। তিনি দায়িত্ব পালন কালে তার অফিসের পিছনেই একটা বেডরুম তৈরি করেন। যেখানে নারীদের এনে অসামাজিক কার্যকলাপ করতেন বলেও অভিযোগ রয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে জাদুঘরের এক কর্মকর্তা জানান,গতকাল রাতে রবিন্দ্র গোপের বড় ছেলের শশুর মারা যায় এ সংবাদ পেয়ে তার ২ ছেলে ও নাতিরা সেখানে চলে যাওয়ার সুযোগে রবিন্দ্র গোপ সকালে একটি মেয়েকে ডেকে নিয়ে যায় যাদুঘরের ডাক বাংলোতে।
বিষয়টি স্থানীয় লোকজনের চোখে পড়ে দীর্ঘ সময় মেয়েটি ডাকবাংলো থেকে বের না হওয়ায় তারা সেখানে গিয়ে অসামাজিক কার্যকালাপের সময় হাতে নাতে রবিন্দ্র গোপকে আটক করে।

এসময় সোনারগাঁ থানা পুলিশ ডাক বাংলো থেকে রবিন্দ্র গোপ ও মেয়েটিকে থানায় নিয়ে যায়।

রবীন্দ্র গোপ ১০ বছর আগে যাদুঘরে চুক্তিবিত্তিক নিয়োগ পান, চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ ১৭ মে ২০১৯ এ শেষ হলেও তিনি এখনো অবৈধভাবে সরকারী ডাকবাংলোতে বহাল তবিয়তে আছেন।

এদিকে রবীন্দ্র গোপের চুক্তি নবায়ন না হওয়ায় ও শেষমেশ নারীসহ আটক হওয়ায় জনমতে স্বস্তি ফিরে এসেছে বলে জানান স্থানীয়রা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *