সোনারগাঁয়ে প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগে ক্লিনিকে ব্যাপক ভাংচুর

স্বাস্থ্য

সোনারগাঁয়ে প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগে ক্লিনিকে ব্যাপক ভাংচুর।

স্টাফ রিপোর্টার: নারায়ণগঞ্জে জেলার সোনারগাঁয়ে একটি হাসপাতালে আমান্তিকা (২০) নামের এক প্রসূতি রোগীকে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠলে বিক্ষুব্ধ জনতা সোনারগাঁও জেনারেল হাসপাতালটি ভাংচুর করে৷

গতকাল সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) সোনারগাঁওয়ে মোগরাপাড়া এলাকায় অবস্থিত সোনারগাঁও জেনারেল হাসপাতালের ডা. নুরজাহানের বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎস্যা দেয়ার অভিযোগ উঠে। পরে সোনারগাঁও উপজেলার বড় সাদিপুর এলাকার আমান্তিকা (২০) নামের প্রসূতির মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী ক্ষুদ্ধ হয়ে হাসপাতালটিতে ব্যাপক ভাংচুর চালায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোনারগাঁও শপিং কমপ্লেক্সের ৩য় তলায় সোনারগাঁও জেনারেল হাসপাতালে ডা. নুরজাহানের তত্বাবধানে গত (৭সেপ্টেম্বর) শুক্রবার সন্ধ্যা ৬ টায় আমান্তিকাকে অপারেশন হয়৷ পরবর্তীতে প্রসূতির অবস্থার অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রথমে নারায়ণগঞ্জ এবং পরে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানোর কথা বললে অভিভাবকরা প্রসূতিকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক আমান্তিকাকে মৃত ঘোষণা করে।
মুহুর্তের মধ্যে সোনারগাঁয়ে প্রসূতির আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে ভুল চিকিৎসার খবর ছড়িয়ে দেয় দিয়ে স্থানীয় জনগন ও আত্মীয়স্বজন প্রথমে হাসপাতালটি ঘেরাও করে, পরে হাসপাতালটির সামনে থাকা রিসিপশন ডেস্ক ও আশপাশের আসবাবপত্রসহ পুরো হাসপাতালে ব্যাপক ভাংচুর চালায়।
সোনারগাঁ থানার সেকেন্ড অফিসার মাসুদ রানা ও উপপরিদর্শক রাজু মন্ডল ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন এবং উত্তেজিত জনগনকে শান্ত করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনেন। সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ আসেনি। আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *