বাড্ডায় পিটিয়ে নারী হত্যা : আসামি হৃদয় পাঁচদিনের রিমান্ডে

বাংলাদেশ

রাজধানীর বাড্ডায় গণপিটুনি দিয়ে তাসলিমা বেগম রেনু নামে এক নারীকে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার প্রধান আসামি ইব্রাহিম হোসেন হৃদয়কে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। আজ বুধবার ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত তার রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বুধবার দুপুরে হৃদয়কে আদালতে হাজির করে পুলিশ। একই সঙ্গে দশ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানান। মহানগর হাকিম মো. জসিমের আদালতে আসামির উপস্থিতিতে শুনানি হয়। শুনানি শেষে আদালত পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত সোমবার বাচ্চু, শাহীন ও বাপ্পী নামের তিনজনকে, গত মঙ্গলবার কামাল হোসেন ও আবুল কালাম আজাদ নামে দুইজনকে চারদিন করে রিমান্ডে নেওয়া হয়। গ্রেপ্তার আরেক আসামি জাফর গত রবিবার ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়ে রেনুকে পিঠিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

গত শনিবার সকালে উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে ওই নারীকে পিটিয়ে আহত করে বিক্ষুব্ধ জনতা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে নিহতের মরদেহ সনাক্ত করেন তার ভাগনে ও বোন রেহানা।

রেনুর ১১ বছরের এক ছেলে ও চার বছর বয়সী মেয়ে রয়েছে। আড়াই বছর আগে স্বামী তসলিম উদ্দিনের সঙ্গে তার বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এরপর থেকে ছেলেমেয়েকে নিয়ে মহাখালী ওয়ারলেস গেইট এলাতায় থাকতেন তিনি। ঘটনার দিন তিনি ছেলেকে স্কুলে ভর্তি করার জন্য বাড্ডায় যান।

রেনুর মৃত্যুর পর ভাগনে নাসির উদ্দিন টিটো বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ৪০০/৫০০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *