প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের জয়

খেলা

জয় দিয়ে শ্রীলঙ্কা সফর শুরু করল বাংলাদেশ। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের আগে আজ মঙ্গলবার একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে ১১ বল হাতে রেখে শ্রীলঙ্কা বোর্ড একাদশকে ৫ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে তামিম ইকবালের নেতৃত্বাধীন টিম টাইগার। ৯১ রানের দারুণ ইনিংস খেলেছেন মোহাম্মদ মিঠুন; আরেকটি হাফ সেঞ্চুরি এসেছে মুশফিকুর রহিমের ব্যাট থেকে। ২৬ তারিখ কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে প্রথম ওয়ানডে।

২৮৩ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ শুরু করেন তামিম-সৌম্য। ৪৫ রানের ওপেনিং জুটি ভেঙেছে লাহিরু কুমারার বলে সৌম্য সরকারের (১৩) বিদায়ে। ৪৭ বলে ৩৭ রান করে অপর ওপেনার তামিম ইকবালও লাহিরু শিকার হয়েছেন। এরপর দলের হাল ধরেন মুশফিকুর রহিম আর মোহাম্মদ মিঠুন। ৪৫ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া মুশি (৫০) পরের বলেই হাসরাঙ্গার শিকার হন। অন্যপ্রান্তে মোহাম্মদ মিঠুন দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছিলেন তিন অংকের দিকে। আকিলা ধনাঞ্জয়ার শিকার হয়ে মাহমুদউল্লাহ ফিরেন ৩৭ বলে ৩৩ রানে।

দুর্দান্ত একটি সেঞ্চুরির খুব কাছে চলে গিয়েছিলেন বিশ্বকাপে বাজে পারফর্ম করার মোহাম্মদ মিঠুন। তবে শ্রীলঙ্কা বোর্ড একাদশের বিপক্ষে আজকের প্রস্তুতি ম্যাচে তিন অংক স্পর্শ করা হলো না তার। ১০০ বলে ১১ চার ১ ছক্কায় ৯১ রান করে মিঠুন ক্যাচ তুলে দিয়েছেন কাসুন রাজিথার বলে। ব্যক্তিগত স্কোর ৮০ পার হওয়ার পর তাকে সত্যিই বেশ নার্ভাস লাগছিল। শেষে সাব্বির রহমান (৩১*) এবং মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের (১৫*) ব্যাটে চড়ে সহজেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। সেটাও ১১ বল আর ৫ উইকেট হাতে রেখে।

এর আগে কলম্বোর পি সারা ওভালে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৮২ রান তুলে লঙ্কানরা। দলীয় ১ রানে নিরোশান ডিকাভেলাকে (০) এলবিডাব্লিউ করে ভালো কিছুর ইঙ্গিত দেন রুবেল হোসেন। এই গতি তারকার দ্বিতীয় শিকার ফার্নান্দো (২)। এরপরেই গুনাথিলাকা আর ভানুকা রাজাপাক্ষের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় লঙ্কানরা। হাফ সেঞ্চুরিয়ান শেহান জয়াসুরিয়া ৭৮ বলে ৫৬ রান করে সৌম্য সরকারের শিকার হন। সৌম্যর অপর শিকার ভানুকা রাজাপাক্ষে (৩২)।

এই যখন দলের অবস্থা, তখন মিডল অর্ডারে হাল ধরেন দাসুন শানাকা এবং হাসরাঙ্গা। মাত্র ৬৩ বলে ৬ চার ৬ ছক্কায় শানাকা খেলেন অপরাজিত ৮৬ রানের ইনিংস। হাসরাঙ্গা ২৮ রানে ফরাহাদ রেজার শিকার হন। রুবেল-সৌম্য নিয়েছেন দুটি করে উইকেট। দুজনেই রান দেওয়ায় বেশ কৃপণ ছিলেন। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান এবং ফরহাদ রেজা। এরমধ্যে তাসকিন আর ফরহাদ বেদম পিটুনি খেয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *