পেছনের দিকে হাঁটছে বাংলাদেশের ক্রিকেট?

খেলা

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সাম্প্রতিক ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর প্রশ্ন উঠেছে যে দলটি বিশ্ব ক্রিকেটে সত্যিকার অর্থে কোথায় অবস্থান করছে। ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরুর আগেও যে প্রত্যাশা ছিল বাংলাদেশের ক্রিকেট দলটি নিয়ে, তা পূরণ করতে পারেনি বাংলাদেশ। তখনই বাংলাদেশ দলের খেলার মান নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়। বিশ্বকাপে খারাপ ফলাফল করার ধারাবাহিকতায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানের হার যেন প্রশ্নটিকে জোরালো করে।

সেই ২০১৫ সাল থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে একটি ইতিবাচক পরিবর্তন দেখা গিয়েছিল। ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা এবং পরে পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জয় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের র‍্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি ঘটায়। এরপর সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতাও অর্জন করে বাংলাদেশ। কিন্তু জাতীয় দলের সাম্প্রতিক পারফরমেন্সর পর এখন অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন যে বাংলাদেশ কি এখন পেছন দিকে হাঁটছে?

২০১৫ থেকে ২০১৬
২০১৫ সালে ১৮টি ওয়ানডে ম্যাচের মধ্যে ১৩টিতেই জয় পায় – ওই বছরই বাংলাদেশ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারায়। পাকিস্তানকে ৩-০ ব্যবধানে, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২-১ ব্যবধানে ওডিআই সিরিজে হারায় বাংলাদেশ। ২০১৪ সালের নভেম্বরে জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে শুরু করে ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে আফগানিস্তান সিরিজ পর্যন্ত টানা ছয়টি সিরিজে জয় পায় বাংলাদেশ। এরপরের এক বছরেও কোনো সিরিজ জেতেনি বাংলাদেশ।

২০১৭ থেকে ২০১৮
২০১৬ সালে ৯টি ম্যাচ খেলে ৩টিতে জয় পায় বাংলাদেশ। আর এর পরের বছর অর্থাৎ ২০১৭ সালে ১৪টি ম্যাচের মধ্যে ৪টি ম্যাচে জেতে বাংলাদেশ। ওই সময়ের পর বাংলাদেশ দলের পারফরমেন্সে ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটে আবারো। ২০১৮ সালে বাংলাদেশ আবারো সিরিজ জেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাদের মাটিতে ও বাংলাদেশের মাটিতে দুবার হারিয়ে। তখন বাংলাদেশ জিম্বাবুয়েকে ৩-০ ব্যবধানে হারায়। এর মাঝে এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলে বাংলাদেশ। ২০১৮ সালে ২০টি ম্যাচে বাংলাদেশ জয় পায় ১৩টিতে।

২০১৯ সাল
২০১৯ সালে বাংলাদেশ শুধুমাত্র বিশ্বকাপের আগে ত্রিদেশীয় সিরিজে সাফল্য পায়, যেখানে আয়ারল্যান্ড ও দুর্বল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ জেতে বাংলাদেশ। এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩-০ তে হারে। বিশ্বকাপে ৯টি ম্যাচের মধ্যে মাঠে গড়ায় ৮টি, যেখানে ৩টি ম্যাচে জয় ও ৫টি ম্যাচে হেরে যায় বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের পরপরই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজেও বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ হয়। এখন পর্যন্ত ২০১৯ সালে খেলা ১৮টি ম্যাচের মধ্যে মাত্র ৭টিতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ কি পেছনের দিকে হাঁটছে?

২০১৫ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত টিম টাইগারের পরিবর্তন নিয়ে বাংলাদেশের একজন ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার শ্রাবণ্য তৌহিদা বলেন, ‘ক্রিকেট অনেক সময় মোমেন্টামের খেলা। বাংলাদেশ বিশ্বকাপে খুব ভালো করেনি, এরপর সাকিব-মাশরাফী ছাড়াই শ্রীলঙ্কায় গেলো। তামিম ইকবাল নেতৃত্ব দিতে পারেনি। তাই সব মিলিয়ে মনে হয়েছে, বাংলাদেশ একটা দল হিসেবে খেলতে পারেনি।’

শ্রীলঙ্কার ভালো করার বিষয়ে শ্রাবণ্য তৌহিদা বিশ্লেষণ এ রকম যে, শ্রীলঙ্কা তাদের প্রথম ম্যাচটি লাসিথ মালিঙ্গাকে উৎসর্গ করেছিল, ফলে শুরু থেকেই তারা ভালো খেলার চেষ্টা করেছে। বিশ্বকাপের পর ক্রিকেটাররা ছুটিতে ছিল কিছুদিন, অন্যদিকে দল হিসেবে পরিকল্পনার অভাব ছিল এই সময়ে। বাংলাদেশ বেশ বিবর্ণভাবে হেরেছে। তবে এটা প্রমাণ করে না যে বাংলাদেশ ২০১৫ সালের আগের সময়ে ফিরে গিয়েছে, কারণ হার-জিত থাকবেই ক্রিকেটে। নতুন কোচ নিয়োগ দেয়া হচ্ছে, আস্তে-ধীরে মোমেন্টামও ফিরে আসবে বলেন মনে করছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *