দীর্ঘ ৭ ঘণ্টা পর ডুবোচরে আটকে পড়া ফেরি উদ্ধার

জেলা খবর

নাব্যতা সংকটের কারণে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে বিআইডাব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ। বুধবার দিবাগত রাত ১১টা ৫৫ মিনিট থেকে নৌরুটে সব ধরনের ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় ডুবো চরে আটকে পড়ে একটি ফেরি। দীর্ঘ ৭ ঘণ্টা চেষ্টার পর ফেরিটি উদ্ধার করা হয়েছে। এতে আসন্ন ঈদে এ নৌরুটে বিপর্যয়ে পড়ে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বিআইডাব্লিউটিসি’র শিমুলিয়া ঘাটের মেরিন ম্যানেজার একেএম শাহজাহান খান জানান, পদ্মায় পলি পড়ে নাব্য সংকটের কারণে ফেরিগুলো চলতে পারছে না। ফেরি চলাচলের জন্য পর্যাপ্ত গভীরতা নেই নৌরুটে। বর্তমানে ১৩টি ফেরি চলাচল বন্ধ আছে। লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের ডাউন চ্যানেলের মুখে নাব্যতা সংকট দেখা দেওয়ায় ফেরিগুলো চ্যানেল পারি দিতে পারছে না। এখানে ফেরি চলাচলের জন্য পর্যাপ্ত পানি নেই। লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের মুখে আসলেই নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরিগুলো ডুবো চরে আটকে যাচ্ছে। বুধবার রাত ১১টার দিকে রো রো ফেরি এনায়েতপুরী শিমুলিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে গিয়ে লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের ডাউন মুখে ডুবো চরে আটকে যায়। রাতভর চেষ্টা করে দীর্ঘ ৭ ঘণ্টা পর আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৬টায় ফেরিটি উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত পরশু লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের মুখের আপ চ্যানেলটিও নাব্যতা সংকটের কারণে বন্ধ হয়ে যায়। বর্তমানে নৌরুটের যে অবস্থা তাতে আসন্ন ঈদে এখানে কি পরিস্থিতি দাঁড়ায় তা বলা মুশকিল।

এদিকে, আজ বৃহস্পতিবার লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের ভাটিতে গতবারের বিকল্প চ্যানেলটি ড্রেজিং শেষে খুলে দেবার কথা রয়েছে। বিআইডাব্লিউটিএ এটি খুলে দিলে পরীক্ষামূলকভাবে ফেরি চলাচলা করে দেখা হবে বলে জানিয়েছে বিআইডাব্লিউটিসি। পরীক্ষা সফল হলে এ নৌরুটে ফেরি চলাচল পুনরায় শুরু হবে। তবে এতে নৌরুটে চলতে গেলে পূর্বে থেকে ফেরি পারাপারে সময় লাগবে বেশি।

মাওয়া ট্রাফিক জোনের টিআই হিলাল উদ্দিন জানিয়েছেন, বেশ কিছু দিন ধরে ফেরি চলাচলে বিঘ্নতার কারণে ঘাটে পারাপারের অপেক্ষা শতাধিক গাড়ি জমে আছে। কিন্ত বুধবার রাত থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এ যানজট আরো দীর্ঘ হচ্ছে। এতে যাত্রীদের দুর্ভোগ বেড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *