‘কামান না দাগিয়ে মশাকে তার জন্মস্থান থেকে নিধন করতে হবে’

জাতীয়

ডেঙ্গু নিয়ে কলকাতার মেয়রের কার্যালয়ে হয়ে গেলো বাংলাদেশ-ভারত রুদ্ধদ্বার বৈঠক। এতে উপস্থিত বাংলাদেশের প্রতিনিধিদের উদ্দশ্যে কলকাতার মেয়র বলেন, ডেঙ্গু নিধনে কামান না দাগিয়ে মশাকে তার জন্মস্থান থেকে নিধন করতে হবে।

এদিকে শনিবার দুপুরে ঢাকার দুজন মেয়রের সঙ্গে কলকাতার মেয়রের ভিডিও কনফারেন্স হওয়ার কথা থাকলেও সেটি পিছিয়ে সোমবার  বেলা ১২টায় নির্ধারণ করা হয়েছে।

বৈঠকের শুরুতে কলকাতা পৌরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ বাংলাদেশে মশা মারতে কামান না দাগার অনুরোধ করেন। বলেন, ফগার মেশিন দিয়ে ডেঙ্গু মশা যায় না। মশা নিধন করতে হবে তার জন্মস্থান বা আঁতুড় ঘর থেকে।

কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন, একটা সময় কলকাতাবাসী মনে করতো মশা মারতে ফগার মেশিন লাগে। কিন্তু এখন তারা সচেতন হয়েছেন। বৈঠক শেষে এই সমস্যা মোকাবিলায় ঢাকাকে সহযোগিতার আশ্বাস দেয় কলকাতা।

বাংলাদেশ সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ডেঙ্গু সমস্যাকে কলকাতা কীভাবে মোকাবেলা করেছে সে ব্যাপারে আমরা আলোচনা করেছি।

কলকাতার মেয়র ও নগর উন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, দুই বাংলার আবহাওয়া অনেকটাই মেলে। তাই আমরা বর্তমানে ঢাকার সমস্যা কীভাবে মোকাবেলা করা যায় তা নিয়ে আলাপ করেছি।

গত সাত বছর ধরে সারা বছরের কর্মসূচির ভিত্তিতেই ১৪৪ ওয়ার্ডের কলকাতা শহরকে প্রায় ডেঙ্গুমুক্ত করা সম্ভব হয়েছে। এমনই বছরব্যাপী পরিকল্পনা করলে সুষ্ঠু ফলাফল পাবে ঢাকাও, এমনটাই মত সংশ্লিষ্টদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *